Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

ক্রমিক নং-

বিষয়

কার্যাবলী

১।

মাসিক কল্যাণ ভাতা

প্রজাতন্ত্রের সকল সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং বোর্ডের নিবন্ধিত ১৯টি স্বায়ত্বশাসিত সংস্থার কর্মকর্তা, কর্মচারী মৃত্যুবরন করলে বা শারীরিক অক্ষমতাজনিত কারনে অবসর গ্রহণ করলে তাকে অথবা তাঁর পরিবারকে সর্বোচ্চ ১৫ বছর অথবা কর্মকর্তা/কর্মচারীর বয়সসীমা ৬৭ বছর যা আগে আসে হিসেবে সর্বোচ্চ টাঃ ১,০০০/-(এক হাজার) টাকা হারে  ধারাবাহিক ভাবে মাসিক কল্যাণ ভাতার সাহায্য দেয়া হয়।

২।

যৌথবীমা তহবিল হতে এককালীন সাহায্য

সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং বোর্ডের আওতাধীন ১৯টি স্বায়ত্ত্বশাসিত সংস্থার কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী চাকুরীরত অবস্থায় মারা গেলে সেই কর্মকর্তা, কর্মচারীর পরিবারকে ২৪ মাসের মূল বেতনের সমপরিমান অর্থ সর্বোচ্চ টাঃ ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) টাকা যৌথবীমা ভাতা এককালীন প্রদান করা হয়।

৩।

বিশেষ চিকিৎসা সাহায্য

সরকারি প্রতিষ্ঠান ও বোর্ডের আওতাধীন ১৯টি স্বায়ত্ত্বশাসিত সংস্থার সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং তাঁদের পরিবারকে চিকিৎসাজনিত কারণে প্রতি অর্থ বছরে ১ (এক) বার চিকিৎসা বাবদ সাহায্য প্রদান করা হয়।

৪।

সরকারী কর্মচারীদের দেশে ও বিদেশে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগের চিকিৎসা সাহায্য

কোন কর্মকর্তা/কর্মচারী নিজে জটিল রোগে আক্রান্ত হলে এ সাহায্য পেতে পারেন। দেশে ও বিদেশে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগের চিকিৎসার জন্য বোর্ডের চিকিৎসা সাহায্য তহবিল হতে জটিল ও ব্যয় বহুল রোগে আক্রান্ত একজন কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে এক বা একাধিক বারে সর্বোচ্চ টাঃ ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকা প্রদান করা হয়ে থাকে।

৫।

শিক্ষাবৃত্তি

৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারীদের সন্তানদের (অনধিক দুই সন্তানের) ৬ষ্ঠ হতে উপরের শ্রেণীতে লেখাপাড়ার সহায়তার জন্য বছরে একবার শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়।

৬।

সাধারণ রোগের চিকিৎসা ও দাফন/অন্তেষ্টিক্রিয়া

৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর সরকারী কর্মচারীদের নিজ ও পরিবারের সদস্যদের সাধারণ রোগের চিকিৎসার জন্য রোগের প্রকৃতি অনুযায়ী সর্বোচ্চ টাঃ ৪,০০০/- (চার হাজার) টাকা বছরে ১ বার প্রদান করা হয় এবং সরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারীদের নিজ ও পরিবারের সদস্যদের মৃত্যুতে দাফন/অন্তেষ্টিক্রিয়া বাবদ সর্বোচ্চ টাঃ ৫,০০০/-(পাঁচ হাজার) টাকা দাফন/অন্তেষ্টিক্রিয়া জন্য টাঃ ৩,০০০/-(তিন হাজার) এবং লাশ পরিবহনের জন্য টাঃ ২,০০০/- (দুই হাজার) টাঃ প্রদান করা হয়।

৭।

ষ্টাফবাস কর্মসূচী

সরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সময়মত অফিসে আনা নেওয়া করার জন্য স্টাফ বাস কর্মসূচী নামে একটি কর্মসূচী রয়েছে। উক্ত কর্মসূচীর অধীনে প্রধান কার্যালয় ঢাকাসহ, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও রাংগামাটি পার্বত্য জেলায় ৬৯ টি বাস দ্বারা কর্মচারীদেরকে প্রতিদিন যথাসময়ে অফিসে আনা নেয়ার কাজ সম্পাদন করা হচ্ছে।

৮।

বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

ঢাকা মহানগর এবং বিভাগীয় পর্যায়ে সরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং তাঁদের ছেলে-মেয়েদের জন্য বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়ে থাকে। এ ধরনের ক্রীড়ানুষ্ঠান কর্মকর্তা/কর্মচারী ও তাদের ছেলে-মেয়েদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপনের সুযোগ করে দেয়। তাছাড়া উক্ত ক্রীড়ানুষ্ঠানে দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত থেকে ক্রীড়া প্রতিযোগীদেরকে উৎসাহ প্রদান করে থাকেন। ক্রীড়াবিদদেরকে ক্রীড়া ক্ষেত্রে আরো সাফল্য বয়ে আনার জন্য ক্রীড়া বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে।